সন্তান প্রসব করতে বাপের বাড়ি গিয়ে মণিরামপুরের এক গৃহবধূ নিখোঁজ: থানায় জিডি

সন্তান প্রসব করতে বাপের বাড়ি গিয়ে মণিরামপুরের এক গৃহবধূ নিখোঁজ: থানায় জিডি
সন্তান প্রসব করতে বাপের বাড়ি গিয়ে মণিরামপুরের এক গৃহবধূ নিখোঁজ: থানায় জিডি

পিতার বাড়িতে সন্তান প্রসব করতে গিয়ে রত্মা খাতুন (৩০) নামে মণিরামপুরের এক অন্তঃসত্তা গৃহবধূ নিখোঁজ হয়েছে বলে তার স্বামীর দাবী করেছে। অজ্ঞাত মোবাইল নম্বর থেকে দাবীকৃত চাঁদার টাকা না পেয়ে তাকে অপহরণ করা হতে পারে। এ ঘটনায় সোমবার মণিরামপুর থানায় অভিযোগ করতে গেলে পুলিশ সাধারণ ডায়েরী গ্রহণ করেছে। ডায়েরী নং ৫৪৮, তারিখ ১৪/১০/২০১৯ ইং।
রত্মা খাতুন স্বামী উপজেলার ঢাকুরিয়া এলাকার মৃত ফজর আলী গাজীর পুত্র নির্মাণ শ্রমিক ফয়জুল্লাহ গাজী ডায়েরীতে উল্লেখ করেছে গত ২০ সেপ্টেম্বর বিকেল ৪টার দিকে তার স্ত্রী সন্তান প্রসব করতে বাপের বাড়ি যশোর খাজুরা লেবুতলা গ্রামে যায়। এরপর ২৭ সেপ্টেম্বর ০১৭৭৬-৪২২৩৬৮ নম্বর থেকে তার ব্যবহৃত ০১৬৮৯-১৫৩৯৩৮ নম্বরে অজ্ঞাত ব্যক্তি বলেন, মাগুরার এক স্থানে তার স্ত্রী রত্মার একটি কন্যা সন্তান হয়েছে ২২ হাজার টাকা দিতে তাদের নিয়ে যেতে বলে। কিন্তু কোন টাকা দিতে না পারায় নির্মাণ শ্রমিক ফয়জুল্লাহ গাজী স্ত্রী ও সন্তানের কোন খোঁজ পায়নি। নির্মাণ শ্রমিক ফয়জুল্লাহ সোমবার মণিরামপুর প্রেসক্লাবে এসে সাংবাদিকদের সামনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে জানায়, তার ধারণা ওই টাকার জন্য তার স্ত্রী এবং ভুমিষ্ট হওয়া শিশু সন্তানকে অপহরণ করা হয়েছে