নিষেদ্ধাজ্ঞা অমান্য করে মা ইলিশ ধরায় শরীয়তপুর ও মাদারীপুরে বিপুল পরিমান কারেন্ট জাল জব্দ, ৮৭ জেলে আটক

নিষেদ্ধাজ্ঞা অমান্য করে মা ইলিশ ধরায় শরীয়তপুর ও মাদারীপুরে বিপুল পরিমান কারেন্ট জাল জব্দ, ৮৭ জেলে আটক
নিষেদ্ধাজ্ঞা অমান্য করে মা ইলিশ ধরায় শরীয়তপুর ও মাদারীপুরে বিপুল পরিমান কারেন্ট জাল জব্দ, ৮৭ জেলে আটক

র‍্যাব-৮, সিপিসি-৩, মাদারীপুর ক্যাম্পের স্কোয়াড কমান্ডার, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা শরীয়তপুর ও জেলা প্রশাসন শরীয়তপুর এর যৌথ অভিযানে ১৫ অক্টোবর মঙ্গলবার আনুমানিক ৮টা ৩০ মিনিট হতে ৫টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত শরীয়তপুর জেলার জাজিরা থানাধীন পদ্মা নদী হতে সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ আহরণ করার অপরাধে, ৭৯ জন জেলেকে আটক করা হয়। এ সময় আটককৃত ব্যক্তিদের নিকট হতে ২০০ কেজি মা ইলিশ, ৫ লক্ষ মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল ও মাছ ধরার কাজে ব্যবহৃত ৪টি স্পিডবোট উদ্ধার করা হয়। আটককৃত জেলেদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ মাহবুবুল হক, সহকারী কমিশনার(ভূমি), জাজিরা, শরীয়তপুর, বাংলাদেশ দন্ডবিধির ১৮৮ ধারা মোতাবেক প্রত্যেক জেলেকে ১ বছর করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা করেন। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এর উপস্থিতে উদ্ধারকৃত ইলিশ মাছ বিভিন্ন এতিমখানায় বিতরণ করা হয় এবং কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

অপরদিকে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মাদারীপুর ও জেলা প্রশাসন মাদারীপুর বিকাল ৫টা হতে ১০টা পর্যন্ত মাদারীপুর জেলার শিবচর থানাধীন পদ্মা নদী হতে ৮ জন জেলেকে আটক করা হয়। আটককৃত ব্যক্তিদের নিকট হতে ১০০ কেজি মা ইলিশ, ১০ হাজার মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল ও ১টি মাছ ধরা নৌকা উদ্ধার করা হয়। আটককৃত জেলেদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ম্যাজিষ্ট্রেট আল নোমান, সহকারী কমিশনার(ভূমি), শিবচর, মাদারীপুর, বাংলাদেশ দন্ডবিধির ১৮৮ ধারা মোতাবেক প্রত্যেক ব্যক্তিকে ৬ মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এর পর নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এর উপস্থিতে উদ্ধারকৃমাদারীপুর ও শরীয়তপুর জেলায় পৃথক পৃথক অভিযানে বিপুল পরিমান কারেন্ট জাল, মা ইলিশ ও মাছ ধরা নৌকা জব্দ
এবং ৮৭ জন জেলেকে আটক করা হয়।ত ইলিশ মাছ বিভিন্ন এতিমখানায় বিতরণ করা হয় এবং কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।