অস্ট্রেলিয়া সরকারের করোনানীতি নিয়ে ফিঞ্চ-ওয়ার্নারের প্রশ্ন

22

করোনা আতঙ্কের জেরে বাতিল হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড ওয়ানডে সিরিজ। মরণঘাতী এ ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করছে অস্ট্রেলীয় সরকার। তবে সেই পদক্ষেপ নিয়েই প্রশ্ন তুলে ফেললেন দেশটির দুই তারকা ক্রিকেটার অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নার।

অস্ট্রেলিয়া সরকারের নিয়মানুযায়ী, রোববার মধ্যরাত থেকে সে দেশে যেসব আন্তর্জাতিক যাত্রী আসবেন, তাদের স্বেচ্ছায় অন্যদের থেকে ১৪ দিন আলাদা থাকতে হবে। মূলত এ নিয়মনীতি নিয়েই প্রশ্ন উঠছে।

এ বিষয়ে প্রথম জিজ্ঞাসা করেন এক অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিক। তিনি বলেন, একটা সত্যিকারের প্রশ্ন আছে। দেশের সরকার কীভাবে জানছে যে যারা আসছেন, তারা নিজেদের স্বেচ্ছাবন্দি করে রাখছেন?

এর পরই এ বিতর্কে যোগ দিয়েছেন ফিঞ্চ। তিনি ওই সাংবাদিকের টুইট রিটুইট করে বলেন, আমিও ঠিক এ কথাটাই ভাবছিলাম। এ দেখে চুপ থাকতে পারেননি ওয়ার্নারও। তিনিও পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দেন। টুইটবার্তায় বাঁহাতি বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান বলেন, সেসব যাত্রী যদি বিমানবন্দর থেকে ট্যাক্সি, ট্রেন, বাস ধরে নিজের বাড়ি ফেরেন, তখন কী হবে?

অস্ট্রেলিয়ায় ইতিমধ্যে ১৫০ জনের ওপরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন তিনজন। পরিপ্রেক্ষিতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন সবার কাছে আবেদন করেছেন, যেন এক জায়গায় ৫০০ জনের বেশি মানুষ জড়ো না হন। তবে স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখার ব্যাপারে কোনো ঘোষণা দেননি তিনি।